বুধবার   ১২ জুন ২০২৪ , ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

নিজস্ব প্রতিবেদক:

প্রকাশিত: ০৯:৩৯, ৭ জুন ২০২৪

বাজেট যেসবের দাম বাড়ছে এবং কমছে

বাজেট যেসবের দাম বাড়ছে এবং কমছে

বৃহস্পতিবার অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী ২০২৪-২৫ অর্থবছরের জন্য ৭ লাখ ৯৭ হাজার কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব করেছেন। বাজেটে বিভিন্ন পণ্য ও সেবার ক্ষেত্রে শুল্ক পরিবর্তনের কারণে সেসবের দামে প্রভাব পড়বে। ফলে বাজেট পাস হলে এসব জিনিসের দামেও পরিবর্তন আসবে।

প্রস্তাবিত বাজেট অনুযায়ী নিম্নলিখিত পন্য ও সেবার দামের বদল ঘটবে।


দাম বাড়ছে:

আইসক্রিম:সকল ধরনের আইসক্রিমের উপর বিদ্যমান সম্পূরক শুল্ক হার ৫ শতাংশের পরিবর্তে ১০ শতাংশ নির্ধারণ করা হচ্ছে।

কোমল পানীয় :কার্বনেটেড বেভারেজে সম্পূরক শুল্ক হার ২৫ শতাংশের পরিবর্তে ৩০ শতাংশ নির্ধারণের প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী। এতে কোমল পানীয়ের এর জন্য নির্ধারিত মাত্রার উপাদান অপেক্ষা ভিন্নতর মাত্রার উপাদান সম্বলিত পানীয়ের ক্ষেত্রে সম্পূরক শুল্ক হার ৩৫ শতাংশের পরিবর্তে ৪০ শতাংশ নির্ধারণ করা হচ্ছে

সিগারেট: সিগারেট ও এ জাতীয় পণ্যের সম্পূরক শুল্কের হার ৬৫ শতাংশের পরিবর্তে ৬৬ শতাংশ নির্ধারণ করা হচ্ছে। এছাড়া সিগারেট বা বিড়ি পেপারের স্থানীয় উৎপাদন পর্যায়ে মূসকের হার সাড়ে ৭ শতাংশের পরিবর্তে ১৫ শতাংশ নির্ধারণ হচ্ছে

মোবাইল সিম: মোবাইল ফোনের সিম/রিম কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে প্রদত্ত সেবার বিপরীতে বিদ্যমান সম্পূরক শুল্ক ১৫ শতাংশের পরিবর্তে ২০ শতাংশ নির্ধারণ করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

এছাড়াও প্রতিটি সিম কার্ড বা ই-সিম সরবরাহের বিপরীতে বিদ্যমান মূসকের পরিমাণ ২০০ টাকার পরিবর্তে ৩০০ টাকা হচ্ছে।

চিকিৎসা সেবা: হাসপাতালে ব্যবহৃত চিকিৎসা যন্ত্রপাতি ও উপকরণ আমদানির শুল্ক ১ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১০ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে। এতে বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার খরচ বাড়বে।

ভ্যাট ৫ শতাংশ থেকে ১৫% করা হচ্ছে যেসব পণ্যে-

আমসত্ব (ম্যাংগো বার), ম্যাংগো জুস, আনারসের জুস, পেয়ারার জুস, তেতুলের জুস, ১ থেকে ৫০ ওয়াটের অধিক ক্ষমতা সম্পন্ন বিদ্যুৎসাশ্রয়ী বাল্ব, টিউব লাইট,এলআরপিসি তার।

এলআরপিসি তার উৎপাদনকারী শিল্পের কাঁচামাল ওয়্যার অব আইরন বা নন-অ্যালয় স্টিল আমদানিতে আমদানি শুল্ক ১০% হতে বাড়িয়ে ১৫% ধার্য করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

অ্যামিউজমেন্ট ও থিম পার্কে ঘোরাঘুরি খাতের বিদ্যমান মূসক হার সাড়ে ৭ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১৫ শতাংশ করা হয়েছে।

ট্যুর অপারেটর: এ সেবার ওপর বিদ্যমান মূসক অব্যাহতি সেবা প্রত্যাহার করা হয়েছে।

কাজু বাদাম : কাজু বাদাম আমদানিতে আমদানি শুল্ক ১৫% হতে কমিয়ে ৫% করা হয়েছে। তবে দেশে উৎপাদিত কাজু বাদামেরবাজার বিকাশের উদ্দেশ্যে কাজু বাদাম আমদানিতে ১০% রেগুলেটরি ডিউটি আরোপ করা হয়েছে।

ইট: হাতে তৈরি প্রতি হাজার ইটে ৫০ টাকা বাড়িয়ে মূল্য সংযোজন কর ৫০০ টাকা করা হয়েছে। মেশিনে তৈরি ইটের মূল্য সংযোজন কর ১০০ টাকা বাড়িয়ে করা হয়েছে ৬০০ টাকা। এছাড়া ৩, ১০ ও ১৭ ছিদ্র বিশিষ্ট ইট এবং মাল্টি কোরড ইটের প্রতি হাজারে মূল্য সংযোজন কর গুনতে হবে ৮০০ টাকা, ব্রিক চিপসের প্রতি ১০০ সিএফটিতে (বর্গফুট) ৮০০ টাকা এবং মিকাড ব্যাটসের প্রতি ১০০ সিএফটির জন্য ৬০০ টাকা গুনতে হবে।

বিদেশি পানির ফিল্টার: দেশি শিল্পের সুরক্ষায় বিদেশি পানির ফিল্টারের আমদানি শুল্ক ১০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১৫ শতাংশ করার প্রস্তাব এসেছে বাজেটে।

দাম কমছে

ডেঙ্গু কিট: ডেঙ্গু রোগ নির্ণয়ের কিট আমদানির ওপর রেয়াতসুবিধা দেওয়া হয়েছে।

কিডনি ডায়ালাইসিস ফিল্টার ও সার্কিট :কিডনি ডায়ালাইসিস ফিল্টার ও সার্কিট আমদানির জন্য নতুন এইচ কোড তৈরি করে আমদানি শুল্ক ১০% হতে কমিয়ে ১% করা হয়েছে।

স্পাইনাল নিডল : স্পাইনাল নিডলকে সহজলভ্য করতে এটির নতুন এইচ এস কোড তৈরি করে আমদানি শুল্ক ৫% নির্ধারণ করা হয়েছে।

এসেপটিক প্যাক: এসেপটিক প্যাক আমদানিতে আমদানি শুল্ক ২৫% হতে কমিয়ে ১০% নির্ধারণ করা হয়েছে।

বিদেশি গুঁড়ো দুধ: পুনঃ মোড়কজাতকরণ শিল্পের বিকাশের জন্য গুড়া দুধ আমদানিতে প্রযোজ্য ২০% সম্পূরক শুল্ক প্রত্যাহার করা হচ্ছে।

শীতের পোশাক: ওভারকোট, কারকোট, কেইপ, ক্লোক, স্কি জ্যাকেট, উইন্ডচিটার, উইন্ড জ্যাকেট, জার্সি, পুলওভার, কার্ডিগান ও সমজাতীয় নিটেড বা ক্রাশেড পণ্য, কাশ্মীরি ছাগল বা অন্য প্রাণীর সরু লোম দিয়ে তৈরি সামগ্রীর সম্পূরক শুল্কহার ৪৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৩০ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

ছেলেদের স্যুট-জ্যাকেট: ছেলেদের স্যুট, ইনসিম্বল, জ্যাকেট, ব্লেজার, ট্রাউজারের মতো পোশাকের সম্পূরক শুল্ক ৪৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৩০ শতাংশ করা হয়েছে।

মেয়েদের জামা-স্কার্ট: মেয়েদের ড্রেস, স্যুট, ইনসিম্বল, জ্যাকেট, ব্লেজার, স্কার্ট, ডিভাইডেড স্কার্ট, ট্রাউজার, বিব, ব্রিচ, শর্টস, ব্লাউজ, শার্ট এবং শার্ট ব্লাউজের মতো পোশাকের সম্পূরক শুল্ক ৪৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৩০ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

অন্তর্বাস: ছেলেদের আন্ডারপ্যান্ট, ব্রিফ, নাইটশার্ট, পায়জামা, বাথরোব, ড্রেসিং গাউন বা সমজাতীয় পণ্যের সম্পূরক শুল্কহার ৪৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৩০ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

মেয়েদের স্লিপ, পেটিকোট, ব্রিফ, প্যান্টি, নাইটড্রেস, পায়জামা, নেগলোজি, বাথরোব, ড্রেসিং গাউন এবং সমজাতীয় পণ্যের সম্পূরক শুল্কহারও ৪৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৩০ শতাংশ করার প্রস্তাব দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী।

শিশু পোশাক: শিশুদের গার্মেন্ট ও ক্লোদিং এক্সেসরিজ নিটেড বা ক্রাশেটেড পণ্যের সম্পূরক শুল্কহার ৪৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৩০ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

ব্রেসিয়ার-বো টাই এক্সেসরিজ: ব্রেসিয়ার, গার্ডল, করসেট, ব্রেস, সাসপেন্ডার, গার্টার, রুমাল, শাল, স্কার্ফ, মাফলার, ম্যান্টিলা, ভেইল, টাই, বো টাই, ক্রাভেট, গ্লাভস, মিটেন্স, মিটস এবং সমজাতীয় ক্লোদিং এক্সেসরিজের সম্পূরক শুল্কহার ৪৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৩০ শতাংশ করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

তবে ব্রেসিয়ার, শাল, স্কার্ভ, মাফলার, ম্যান্টিলা, ভেইল, এবং সমজাতীয় পোশাকের শুল্কহার অপরিবর্তিত (৪৫ শতাংশ) রয়েছে।

মিথানল: বাল্ক আকারে মিথানল আমদানির ক্ষেত্রেও আমদানি শুল্ক ১০% হতে কমিয়ে ৫% করা হচ্ছে।

পলিপ্রোপাইলিন ইয়ার্ন: কার্পেট উৎপাদনকারী শিল্পের কাঁচামাল পলিপ্রোপাইলিন ইয়ার্ন আমদানিতে আমদানি শুল্ক ১০% হতে কমিয়ে ৫% নির্ধারণ করা হচ্ছে।

ম্যাংগানিজ: ফেরো এলয় উৎপাদনকারী শিল্পের কাঁচামাল ম্যাংগানিজ আমদানিতে আমদানি শুল্ক ১০% হতে কমিয়ে ৫% ধার্য করা হচ্ছে।

ল্যাপটপ: ল্যপটপ আমদানিতে ভ্যাট প্রত্যাহার করায় কমতে পারে এই প্রযুক্তি পণ্যের দাম।

বাজেটে আমদানিশুল্ক কিছুটা বাড়ানো হলেও ভ্যাট পুরোটা তুলে নেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে। ল্যাপটপ এর আমদানি শুল্ক ৫% হতে বাড়িয়ে১০% করার এবংআমদানি পর্যায়ে আরোপিত মূসক প্রত্যাহারেসুপারিশ করা হয়েছে। এতে সর্বমোট করভার ৩১% হতে কমে ২০.৫০% এ গিয়ে দাঁড়াবে।”

উড়োজাহাজের ইঞ্জিন:এয়ারক্রাফট ইঞ্জিন ও প্রপেলারের ওপর আমদানি পর্যায়ে প্রযোজ্য মূল্য সংযোজন কর প্রত্যাহার করার প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী।

সর্বশেষ

জনপ্রিয়